1. admin@banglatimesbd.com : admin :
কী কী ঘটনা আছে বিল গেটসের? - বাংলা টাইমস বিডি
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:২৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
প্রধান খবর
পরীমনিকে সাহসী বললেন নচিকেতা কেনো সিএমসি হাসপাতালে এত ভিড়? সাহারা খাতুনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত পরীমনির ইস্যুতে আমরা বাড়াবাড়ি করছি না তো! ১৪ বছর পর ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা’র ফাইনাল খেলা ৭৫-এর পর একমাত্র রাজনৈতিক নেতা শেখ হাসিনা: এস এম কামাল ঢাকা-১৪ আসন উপনির্বাচনের জন্য দলীয় ফরম নিলেন তুহিন শুধু মিছিল সমাবেশ নয়, জনসচেতনতা সৃষ্টিও রাজনৈতিক দলের দায়িত্ব: বাহাউদ্দিন নাছিম বিশেষ কেবিনে স্থানান্তর হলেও এখনো ঝুঁকিমাক্ত নন খালেদা জিয়া এরশাদের মৃত্যুবার্ষিকীতে ভোট গ্রহণ না দিতে জিএম কাদেরের আহবান ‘গরীব মারার’ বাজেট প্রস্তাবনা প্রত্যখ্যান সিপিবির প্রস্তবিত বাজেট স্বাগত জানিয়ে কৃষক লীগের আনন্দমিছিল পুর্বধলায় মাদকাস্কক্ত এরশাদের বিরুদ্ধে এলাকাবাসীর অভিযোগ জামিন পেলেন রোজিনা, মামলা থেকে মুক্তির দাবী সংসার ভাঙলো চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির টিকার দ্বিতীয় ডোজ চার মাস পরে নিলেও চলবে? যুদ্ধবিরতীতে হামাস-ইসরায়েল, স্বাগত জানালো বাইডেন রোজিনা ইসলামকে ঘষেটি বেগমের সাথে তুলনা রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীর সাংবাদিক রোজিনার সাথে যে বর্বরতা হয়েছে তা ক্ষমার অযোগ্য অপরাধ : জিএম কাদের পল্লবীতে ছেলের সামনে বাবাকে খুন : সাবেক এমপি আউয়াল গ্রেপ্তার সানি-মৌসুমীর ছেলের বার থেকে গ্রেপ্তারকৃত ৩ জন রিমান্ডে সাংবাদিক রোজিনা ইস্যুতে সরব হলেন ব্যারিস্টার সুমন সাংবাদিক রোজিনা ইসলামের জন্য ক্ষুব্ধ আওয়ামী লীগ কাঁদলেন রোজিনার সহকর্মী সাহিত্যিক আনিসুল হক আমিও অপরাধী, স্বেচ্ছায় কারাবরণ করতে চাই ‘নির্বাচন কমিশন না থাকলে ৩০টি আসনও পেত না বিজেপি’ নিজ নিজ ঘরে থেকেই সবাই ইবাদত করুন : জিএম কাদের ‘তুমি মোর পাও নাই পরিচয়’ একদিনে মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড ভারতে আজই লন্ডন নেওয়া হতে পারে খালেদা জিয়াকে ‘বিপদে আ.লীগই মানুষের পাশে দাঁড়ায়’ সকালে ঘুম থেকে উঠে যা করবেন এবং করবেন না কী কী ঘটনা আছে বিল গেটসের? দরিদ্রদের মাঝে মাঝে ঈদ উপহার দিচ্ছেন রিপন সদরঘাটে পাঁচ শতাধিক মানুষের মাঝে যুবলীগের খাবার বিতরণ
add

কী কী ঘটনা আছে বিল গেটসের?

  • মঙ্গলবার, ৪ মে, ২০২১
  • ১৮৪ বার পড়া হয়েছে
বিল গেইটস। ছবি: সংগৃহীত।

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঘটনায় ভরপুর মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের জীবন । লেখাপড়া শেষ না করেই বিশ্বের সেরা ধনী ব্যক্তির আসনে ওঠা এবং দানশীল হিসেবে খ্যাতিমান হওয়ার ঘটনা তো সবারই জানা। কিন্তু তার জীবনে এমন কিছু মজার ঘটনা আছে যা আপনাকে আনন্দ দিবে, দিবে উৎসাহ। ঘটনাগুলো হলো-

কিশোর বিল গেটস কিন্তু একেবারেই শান্তশিষ্ট ছিলেন না। স্কুলে পড়ার সময় তাঁর পছন্দের সব মেয়েকে এক ক্লাসে আনার ব্যবস্থা করেছিলেন তিনি। কিশোর বিল গেটসকে স্কুল কর্তৃপক্ষ কম্পিউটার ব্যবহার করে একটি ক্লাস শিডিউল তৈরি করে দিতে বলেছিল। এই সুযোগ কাজে লাগান তিনি। তাঁর পছন্দের সব মেয়েকে দিয়ে নিজের ক্লাস ভরান।

হার্ভার্ডে পড়ার সময় যেসব কোর্সের জন্য নিবন্ধন করেছিলেন, তার একটিতেও হাজিরা দেননি। এর পরিবর্তে তাঁর ভালো লাগত যেসব ক্লাস, সেখানে বসে যেতেন। তবে তাঁর মুখস্থবিদ্যা ছিল দুর্দান্ত। ফলে চূড়ান্ত পরীক্ষায় তাঁকে আটকায় কে? ফলে ক্লাস না করেও সব সময় এ গ্রেড পাওয়া ছাত্র ছিলেন বিল গেটস।

হার্ভার্ডে পড়ার সময় ২০ বছর বয়সী বিল গেটস ‘প্যানকেক সর্টিং’ নামের দীর্ঘদিনের এক গাণিতিক সমস্যার সমাধান করে ফেলেন। তাঁর অধ্যাপক যখন ওই সমাধানটি একাডেমিক পেপারে প্রকাশের কথা বলেন, তখন বিল গেটস মাইক্রোসফট নিয়ে ঝুঁকে পড়েন। হার্ভার্ডের সাবেক অধ্যাপক ক্রিস্টোস পাপাডিমিত্র লিখেছেন, ‘দুই বছর পর যখন বিল গেটসকে ডেকে বলা হলো, তাঁর সমাধানটি গণিতের সাময়িকীতে প্রকাশের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে। তখন তাঁর আগ্রহ দেখা যায়নি। সে নিউ মেক্সিকোর আলবুকার্কে মাইক্রোপ্রসেসরের মতো যন্ত্রের জন্য কোড লিখতে ছোট একটি কোম্পানি চালাতে আগ্রহী।’ ক্রিস্টোট লিখেছেন, এ রকম মেধাবী একজন ছেলে গোল্লায় যাচ্ছে বলে ভেবেছিলেন তিনি।

জোরে গাড়ি চালানোর জন্য একবার নয়—তিনবার, তা-ও একই পুলিশের কাছে দুইবার জরিমানা দেওয়ার নজির আছে বিল গেটসের। পোরশে ৯১১ গাড়ি চালিয়ে আলবুকার্ক থেকে সিয়াটলে ফেরার সময় তাঁকে জরিমানা করা হয়। আলবুকার্ক মরুভূমিতে সাধারণত খুব জোরে গাড়ি চালাতেন গেটস। একবার এক বন্ধুর কাছ থেকে পোরশে ৯২৮ মডেলের সুপারকার ধার করে এত জোরে চালিয়েছিলেন যে তা ভেঙে যায়। এক বছর লেগেছিল তা মেরামত করতে।

মাইক্রোসফটের অফিসে কর্মীরা কখন আসছেন বা যাচ্ছেন, তা গাড়ির নম্বরপ্লেট দেখে মনে রাখতেন বিল গেটস। টেলিগ্রাফকে এক সাক্ষাৎকারে বিল গেটস বলেছিলেন, ‘কর্মীরা কতটা কঠোর পরিশ্রম করছেন, তা যাচাই করতে আমার মান প্রয়োগের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হতো। আমি সবার নম্বরপ্লেট জানতাম। পার্কিংয়ে প্লেট দেখলেই বুঝতে পারতাম কে কখন আসছেন বা যাচ্ছেন। প্রতিষ্ঠান বড় হয়ে যাওয়ার পর আমি এতে একটু শিথিল হই।’

কম্পিউটারে গেম খেলা বিল গেটসের পছন্দ। কিন্তু তা একসময় নেশা হয়ে গিয়েছিল। মাইনসুইপার নামের গেমটির এতই ভক্ত ছিলেন যে তাঁর মনোযোগ ঠিক রাখতে গেমটি আনইনস্টল করতে হয়েছিল। একবার যখন এক কর্মী কম্পিউটার স্ক্রিপ্ট লিখে বিল গেটসের গেমের স্কোরকে হারিয়ে দেন, তখন গেটস বলেন, যন্ত্র যদি মানুষের চেয়ে দ্রুতগতিতে কাজ করে, আমরা কীভাবে মর্যাদা রাখব?

১৯৯০ সাল পর্যন্ত বিল গেটস কোম্পানির সব লোক নিয়ে উড়োজাহাজের ইকোনমি ক্লাসে উঠেছেন। কোম্পানির রীতি ছিল সব কর্মীকে ইকোনমি ক্লাসে যেতে হবে। বিল গেটসও তা মেনে চলতেন। গেটসের এক সহকর্মী লিখেছেন, ১৯৯০ সালে মাইক্রোসফটে যোগ দেওয়ার পর এক ব্যবসায়িক ভ্রমণে বিল গেটসের সঙ্গে তিনি ইকোনমি ক্লাসে গিয়েছিলেন। ওই সময় মাইক্রোসফট বড় প্রতিষ্ঠান হয়ে দাঁড়িয়েছিল। বড় প্রতিষ্ঠানের প্রধান হয়েও কর্মীকে নিয়ে ইকোনমি ক্লাসে যেতে গেটসের মধ্যে কোনো অস্বস্তি দেখেননি তিনি। তিনি মাঝখানের সিটে বসেছিলেন। সারা পথ বই পড়তে পড়তে গিয়েছিলেন গেটস। পরে অবশ্য বিল গেটস নিজস্ব জেট বিমান কিনেছেন।

বিল গেটসকে কারিগরি দিক থেকে ফাঁকি দেওয়া সম্ভব নয়। কোনো সফটওয়্যার তৈরির মাঝপথে তিনি বাগড়া দেন না। কিন্তু এক মিনিটের জন্যও তাঁকে বোকা বানানো সম্ভব নয়। কারণ, তিনি একজন সত্যিকারের প্রোগ্রামার।

খাবারের পর, বিশেষ করে রাতের খাবারের পর নিজের প্লেট নিজে ধুয়ে ফেলেন তিনি। তিনি বলেন, অন্যরা সাহায্য করতে চাইলেও নিজের কাজ নিজে করতে পছন্দ করেন তিনি।

একবার এক সাক্ষাৎকারের সময় হুলুস্থুল কাণ্ড বাধিয়ে বসেন বিল গেটস। সাংবাদিককে ক্ষমা চাইতে বাধ্য করেন তিনি। ওই সময় বাথরুমের গিয়ে নিজেকে আটকে রাখেন। যতক্ষণ পর্যন্ত সাংবাদিক ক্ষমা না চান, ততক্ষণ বাথরুমে বসে থাকার হুমকি দেন। তাতে কাজ হয়। মাইক্রোসফটের প্রতিবেদক ম্যারি জো ফলি এক সাক্ষাৎকারে এ তথ্য জানান। ফলি বলেন, মজার একটি ঘটনা এটি। কমডেক্স নামের এক সম্মেলনের সময় কয়েকজন সাংবাদিক মিলে গেটসের সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলেন। ওই সময়কার বিখ্যাত সাংবাদিক জন ডজ খেপিয়ে দেন বিল গেটসকে। অবশ্য তাঁর সাক্ষাৎকার নেওয়ার ধরন ছিল অন্যদের চেয়ে আলাদা। তিনি বিল গেটসকে ‘বাজারের সংজ্ঞা কী’ জাতীয় প্রশ্ন করেন। এতে বিল খেপে যান এবং উঠে গিয়ে বাথরুমে যান এবং নিজেকে আটকে রাখেন। বলেন, জন ক্ষমা না চাইলে আর বেরোবেন না। জন তখন বাথরুমের দরজার সামনে গিয়ে বলেন, ‘আই অ্যাম সরি।’

##

add

ভালো লাগলে এই পোস্টটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − three =

এই কেটাগরির আরো খবর

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট

©banglatimes24 2020 All rights reserved, Design & Developed By:

Theme Customized By BreakingNews